1. adnanfahim069@gmail.com : Adnan Fahim : Adnan Fahim
  2. admin@banglarkota.com : banglarkota.com :
  3. kobitasongkolon178@gmail.com : Liton S.p : Liton S.p
  4. miraz55577@gmail.com : মোঃ মিরাজ হোসেন : মোঃ মিরাজ হোসেন
  5. ridoyahmednews@gmail.com : Ridoy Khan : Ridoy Khan
  6. irsajib098@gmail.com : Md sojib Hossain : Md sojib Hossain
  7. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ

আপনার লেখা গল্প,কবিতা,উপন্যাস, ছড়া গ্রন্থ আকারে প্রকাশ করতে যোগাযোগ করুন। সাগরিকা প্রকাশনী ০১৭৩১৫৬৪১৬৪৷ কিছু সহজ শর্তে আমরা আপনার পান্ডুলিপি প্রকাশের দায়িত্ব নিচ্ছি।

আশ্রম কন্যা : কলমে রুহ রয়।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন।

রিপোর্টার মোঃ মিরাজ হোসেন।
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ৫১ বার পড়া হয়েছে

আশ্রম কন্যা :
কলমে রুহ রয়
19.04.2021
_________________________________________

যে দেশের মাতা আমি, সেই দেশের আমি প্রথম অনাথ আশ্রম পালিতা,
শুদ্ধ কথায় যা কে বলা হয় “আশ্রম কন্যা” ,
স্বর্গের অস্তিত্ব বিপন্ন, মাতা নিলো ছলনাময়ী রূপ, ঋষির তপস্যা ভাঙ্গলো, শুরু উদ্দাম প্রেম সুখ , ফলশ্রুত;আমি অবৈধ কন্যা রূপ।
সুন্দরী, দ্বায়িত্ব সম্পন্না, স্বর্গের জন্য প্রস্তুত, মাতা নেয় নি সন্তানের দ্বায়িত্ব,
মাতা মেনকা, স্বর্গের নর্তকী,
পিতা করেননি স্বীকার,আমি বিশ্বামিত্র দুহিতা,
আমি শকুন্তলা, প্রথম আশ্রম পালিতা; মুনি কন্যা, পালক পিতা “কণ্ব” ।
এখনেই শেষ নয় আমার কথা,
আমি শকুন্তলা, আশ্রম কন্যা। পশু পাখি ফুল আমার সখা, সখী। আছে আরো সখী ললিতা, প্রিয়ংবদা, অনুসূয়া।
বোধ করি আমিই, হ্যাঁ আমি প্রথম, বিবাহের প্রতিশ্রুতিতে ধর্ষিতা! স্বামী ভ্রমরের ন্যায়, দুষ্মন্ত রাজা ।
কবি, মহাকবির রচনার বিষয়, এই শকুন্তলা, কলমের ছোঁয়ায় আমার প্রেম কাব্য আজ সবার জানা,
কেউ জানেনি নারী মনের যন্ত্রণা, কেউ রাখে নি শালীনতা, কেউ দেখেনি আমার বিরহ যন্ত্রণা।
প্রেম যদি মধুর, প্রেম যদি গভীর, তবে কেন প্রেমের চিহ্ন প্রদর্শনের ছলনা ।
বিয়ের পর রাজা স্বামী গেলেন চলে, আমায় সঙ্গে নিলেন না, তখন অন্তঃসত্ত্বা,
পালক পিতার চিন্তা আর ধরে না, পাঠালেন স্বামীর গৃহে, স্বামী রাজা ভরা সভাতে আমায় চিনতে-ই পারলেন না,
যার সন্তান আমার গর্ভে সেই স্বামী কিছুদিনের ব্যবধানে আমায় চিনতে পারলেন না,
চেয়ে বসলেন কোন বিবাহের চিহ্ন, রাজ-উপহার যা প্রমাণ করবে আমাদের গান্ধর্ব বিয়ের, না কি করছি আমি ছলনা?
কোনো কবি, মহাকাব্যে লেখেনি সেই ক্ষণে নারী মনের লজ্জা, যন্ত্রনার কথা, কি লাঞ্ছনা, সে কি যন্ত্রণা – কেউ, কেউ জানতে চায় নি, কেউ লেখেনি সেই সব কথা।ভরা রাজসভায় আসন্ন সম্ভবা নারীর মনের কি লজ্জা, লাঞ্ছনা,
কি ছিলাম সেদিন আমি পতিতা?
উপাখ্যানে, ও না কি অভিশাপ! সেও তো এক পুরুষের-ই দেওয়া! হায় কপাল আমার, শুধুই নারীর সতীত্ব প্রমাণ, যুগে যুগে বারবার হায় রে পবিত্রতা!

আমি শকুন্তলা, সবাই জানে প্রেমের উপাখ্যানের কথা, কেউ বোঝে নি নারীর মনের কি ব্যথা, যন্ত্রনা, তবে কি আমি সেদিন ভরা রাজসভা তে করেছিলাম কি ছলনা, আছে কোন উত্তর?
নারীর ভাগ্য কে লেখেন! কোনো পুরুষের কি কল্পনা, না হলে এমন কেন ছলনা যে মুনি পিতা, সে পালন করে না; আর এক মুনি পালন করেন, যদিও নয় সে জন্মদাতা। আর এক মুনি অভিশাপ দেন সে প্রেমের কান্না বোঝে না।
আমি মেনকা কন্যা, বিশ্বামিত্র দুহিতা,
ভরত মাতা।
আমি জানি, আমি একাধারে অনাথ আশ্রম পালিতা, অন্য ধারে আমি ধর্ষিতা,
আমি মহাভারতের মাতা, ভরত জননী শকুন্তলা।

রুহ

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সাগরিকা প্রকাশনী ও বই বিপণি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত