1. adnanfahim069@gmail.com : Adnan Fahim : Adnan Fahim
  2. admin@banglarkota.com : banglarkota.com :
  3. kobitasongkolon178@gmail.com : Liton S.p : Liton S.p
  4. miraz55577@gmail.com : মোঃ মিরাজ হোসেন : মোঃ মিরাজ হোসেন
  5. ridoyahmednews@gmail.com : Ridoy Khan : Ridoy Khan
  6. irsajib098@gmail.com : Md sojib Hossain : Md sojib Hossain
  7. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ

আপনার লেখা গল্প,কবিতা,উপন্যাস, ছড়া গ্রন্থ আকারে প্রকাশ করতে যোগাযোগ করুন। সাগরিকা প্রকাশনী ০১৭৩১৫৬৪১৬৪৷ কিছু সহজ শর্তে আমরা আপনার পান্ডুলিপি প্রকাশের দায়িত্ব নিচ্ছি।

*নিশ্চুপ* মোঃ মেহেদী হাসান শাওন।দৈনিক বাংলার কথা অনলাইন পত্রিকা।

রিপোর্টার: লিটন বিদ্রোনাথ রায়
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ২২৬ বার পড়া হয়েছে

 

 

নিশ্চুপ
মোঃ মেহেদী হাসান শাওন

 

বাবা বয়স তো হলো এখন কী?
উত্তর: আমি নিশ্চুপ।
দেখ তাকিয়ে আমি আর পারছি না,
বলতে পারিস কখন তুই বুঝবি?
উত্তর: আমি নিশ্চুপ।

মা ও মা খেতে দাও না!
হে খালি তো বসে বসে খাচ্ছিস,
কাজ কর্ম তো কিছুই নেই।
ঐ দিকে বোনটা যে বড় হতে চললো,
কোন খবর কি আছে তোর?
উত্তর: ভাতের প্লেট শুকায় আমি চুপ।

ভাইয়া শুন না, কলেজের ফিস দিতে হবে,
আব্বুকে বললাম কিন্তু বলল নেই।
তুই দিতে পারবি খুব দরকার টাকাগুলো,
কিরে ভাইয়া বলল না।
শুন্য পকেটে হাত, লজ্জায় বের করতে পারি না,
আমি নিশ্চুপ।

টেলিফোনে বড় ভাই খুব প্রভাবশালী!
ভাইয়া একটা চাকরি খুব দরকার,
যেকোনো চাকরি পিয়ন না হয় ঝাড়ুদার।
হুম! চাকরি একটা আছে বললেন ভাই,
কিন্তু শুনো লাখ খানেক টাকা চাই।
যদি দিতে পারো টাকা,
সিট টা তোমার জন্য ফাঁকা।
কি বলব আমি? খানিকটা নিশ্চুপ,
আচ্ছা ভাই জানাবো শীঘ্রই,
দেখি না কি হয়‌।

দোস্ত একটা টিউশনি হবে?
বোনটার ফিস বাকি, বাবার ওষুধ!
ভাবছি বেতন পেয়ে মায়ের জন্য,
কিনব নতুন একটি শাড়ি।
বল না বন্ধু একটা টিউশনি হবে?
আচ্ছা আমি দেখছি করা যায় কি,
যদি পাই তোকে জানাবো আর কি।
আমি নিশ্চুপ বললাম ঠিক আছে।

সারাদিন ঘুরলাম পথে পথে,
যেকোনো কাজ যদি পেতাম হাতে!
হোক না সেটা বড় কিংবা ছোট,
জোগাড় হলেই হবে ডাল ভাত দু মুঠো।
ধুলো জমেছে সব সনদ পত্রে,
একদিন রেখেছিলাম কত যত্নে।
ভাবতে ভাবতে কেটে যায় বেলা,
সন্ধে হয়ে গেল বাড়ি ফেরার পালা।

বাড়িতে ঢুকতে না ঢুকতেই চিৎকার চেঁচামেচি,
সারাদিন আড্ডা দিয়ে নবাব ফিরেছেন নাকি।
বাড়ির কথা কি পড়ে না মনে,
নাকি নতুন বাড়ি হয়েছে কোনোখানে?
উত্তর দেওয়ার সাহস নেই আমার,
আমি নিশ্চুপ একাকার।

হঠাৎ বললাম মা বাবা একটু বোঝো,
আরে রাখ বোঝাবুঝির কি আছে?
বললাম আমি রেগে গিয়ে,
মরলেও কি আমার জন্য কাঁদবে না তোমরা?
মা চেঁচিয়ে বলল ভয় দেখাচ্ছিস আমাদের?
বাবা বললো মর গা কি যায় তাতে।
হতবাক আমি, নিশ্চুপ আমি,দেহ ক্লান্ত অসার।

কিছু না বলে নিজ রুমে গেলাম,
জানালা দরজা সব বন্ধ করে দিলাম।
বাইরে থেকে বাবা বলতে লাগলো ভয় দেখায় আমাকে,
মা বললো আরে বাদ দাও তো,
কুকুরের লেজ কখনো সোজা হয় না।
উত্তর দেওয়ার কিছু নেই আমি নিশ্চুপ।

ভাবতে লাগলাম কেউ বুঝলো না আমারে,
কষ্ট তো ভাই আমার ও লাগে।
আমি কি চাই না করতে কিছু?
কী করি ব্যর্থতা ছাড়ে না পিছু।
রাগে অভিমানে দিলাম গলায় ফাঁসি,
মুখে কিন্তু রয়ে গেল ছোট্ট হাসি।
শেষ বিদায়, নিশ্চুপ কোন কথা নেই।

কিছুক্ষণ পর সবাই রুমে এসে,
দেখল আমি কি করলাম বসে।
মা চিৎকার দিয়ে বলল খোকা,
এ তুই কি করলি বোকা?
উত্তর আমি নিশ্চুপ।
বাবা কাঁদে,বোন বলে ভাইয়া,
কোন ফিস লাগবে না।
তুই আয় না ফিরে!
আমি কি বলবো? আমি তো নিশ্চুপ,
অতঃপর আমি অনন্তকাল নিশ্চুপ!!
নিশ্চুপ! নিশ্চুপ! নিশ্চুপ!

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সাগরিকা প্রকাশনী ও বই বিপণি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত