1. adnanfahim069@gmail.com : Adnan Fahim : Adnan Fahim
  2. admin@banglarkota.com : banglarkota.com :
  3. miraz55577@gmail.com : মোঃ মিরাজ হোসেন : মোঃ মিরাজ হোসেন
  4. ridoyahmednews@gmail.com : Ridoy Khan : Ridoy Khan
  5. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

আপনার লেখা গল্প,কবিতা,উপন্যাস, ছড়া গ্রন্থ আকারে প্রকাশ করতে যোগাযোগ করুন। সাগরিকা প্রকাশনী ০১৭৩১৫৬৪১৬৪৷ কিছু সহজ শর্তে আমরা আপনার পান্ডুলিপি প্রকাশের দায়িত্ব নিচ্ছি। ঘরে বসে যে কোন বই কিনতে বা বিক্রি করতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।বই বিপণী বিডি।মোবাইলঃ ০১৭৩১৫৬৪১৬৪, www.boibiponibd.com

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টালে কিছু সংখ্যক সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগ ০১৭৩১৫৬৪১৬৪ অথবা সরাসরি মোহাম্মদপুর মোড় বাসস্ট্যান্ড,ছুটিপুর রোড,ঝিকরগাছা,যশোর।

শিশুতোষ গল্পঃ টিকলির ভাষা দিবস পালন লেখকঃ জহির টিয়া।বাংলার কথা অনলাইন।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৬৬ বার পড়া হয়েছে

টিকলির ভাষা দিবস পালন
জহির টিয়া

দুলির ঘুম ভাঙতেই ছোটে গেল টিকলির কাছে। গিয়ে দেখে, মুখ ভার করে বসে আছে টিকলি। টিকলি, দুলির পোষা ময়নাপাখির নাম। এটি পাহাড়ি ময়নাপাখি। দেখতে লম্বাটে। ঠোঁটটা সরু ও হালকা কমলা রঙের। ঠোঁটের অগ্রভাগ কিছুটা হলুদ। মাথার চারপাশের মাংসল উপাঙ্গটাও হালকা হলুদ। দারুণ কথা বলতে পারে। তাই দুলির খুব পছন্দ ময়নাটা। দুলির বড় মামা বান্দরবনে চাকরি করেন। চার মাস আগে দুলিকে জন্মদিনের উপহার হিসেবে গিফট করেছিলেন ময়নাটি।

দুলি খাঁচার চারিদিকে ঘুরতে ঘুরতে বলল, কিরে টিকলি মন খারাপ করে বসে আছিস কেন? কোনো উত্তর করল না টিকলি। আবার দুলি জিজ্ঞেস করল। তবুও কোনো উত্তর করল না। এবার খাঁচাটা হাত দিয়ে টান দিলো দুলি। নড়েচড়ে ওঠলো টিকলি। তবুও কোন কথা বলল না। এবার ধমকের সুরে দুলি বলল, ঠিক আছে কথা বলবি না তো বলিস না। তবে তো ইশারা করতে পারিস যে, তোর খিদা পেয়েছে!
টিকলির খিদে লাগলেই মাঝেমধ্যে এমন গোমড়া মুখে বসে থাকে। সেটাই অনুমান করেছিল দুলি।
দুলি তুমি এতো ভুলোমনা কেন? গত সপ্তাহে আমাকে কী বললে? আর আজকেই ভুলে গেলে! আজকে কত তারিখ বলো তো? ভাঙা ভাঙা কণ্ঠে জানতে চাইল টিকলি।
এবার দুলি মাথা চুলকাতে চুলকাতে বলল, আজকে তো ফেব্রুয়ারির ২০ না ২১ তারিখ!
সত্যি সত্যিই তুমি ভুলোমনা দুলি। আজ একুশে ফেব্রুয়ারি না! মাতৃভাষা দিবস। এই দিনে বাংলা ভাষার জন্য রফিক, শফিক, জব্বারসহ আরও অনেকেই জীবন দিয়েছিলেন। তাদের জীবনের বিনিময়ে আমরা মধুর বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারছি। এগুলো তুমি এতো তাড়াতাড়ি ভুলে গেলে।
টিকলির মুখে এমন কথা শোনে দুলির মুখটা লজ্জায় রক্তজবার মতো হয়ে গেল। হাত জোড়া করে ক্ষমা চেয়ে দুলি বলল, সরি, টিকলি। সত্যিই আমি ভুলে গেছিলাম।
তোমাকে কতক্ষণ হতে ডাকছি। কিন্তু তুমি কত বেঘোরে ঘুমাচ্ছিলে? সূর্য ওঠে গেছে। শহীদ মিনারে ফুল দিতে যাবে না? আমাকে তো নিয়ে যাবার কথা, তাই না?
হ্যাঁ, অবশ্যই তোমাকে নিয়ে যাবো টিকলি। কয়েক মিনিট ওয়েট করো। আমি এক্ষুনি রেডি হয়ে আসছি।

তাড়াতাড়ি বাড়ির ফুলবাগান হতে কিছু ফুল তুলল দুলি। এরপর টিকলিকে সাথে নিয়ে ছোটে গেল স্কুলের শহীদ মিনারে। গিয়ে দেখে সবার ফুল দেওয়া শেষ হয়ে গেছে। খালি পায়ে দুলি। মুখে একুশে ফেব্রুয়ারির গান গাইতে গাইতে শহীদ মিনারে ফুল দিলো দুলি। টিকলিও দুলির কাছে হতে কয়েকটা ফুল নিয়ে ঠোঁটে করে শহীদ মিনারের বেদিতে রাখল। দুলির সাথে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকলো টিকলিও শহীদ মিনারের সামনে। শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বিদায় দিলো তারা।

শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সাগরিকা প্রকাশনী ও বই বিপণি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত