1. admin@banglarkota.com : admin :
  2. jakariaborkoth@gmail.com : মোঃ তারেক হোসেন জাকারিয়া বরকত : মোঃ তারেক হোসেন জাকারিয়া বরকত
  3. adnanfahim069@gmail.com : মোঃ আবরার ফাহিম : মোঃ আবরার ফাহিম
  4. mdmamunhossen1222@gmail.com : মোঃ মামুন হোসেন : মোঃ মামুন হোসেন
  5. nahidadnan124@gmail.com : নাহিদ হোসেন নিরব : নাহিদ হোসেন নিরব
  6. ridoyahmed.news@gmail.com : মোঃ হৃদয় আহমেদ : মোঃ হৃদয় আহমেদ
  7. irsajib098@gmail.com : মোঃ সজীব হোসেন : মোঃ সজীব হোসেন
চুয়াডাঙ্গার হরিশপুরে ৭ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার ধর্ষক মুনতাজ গ্রেফতার।দৈনিক বাংলার কথা। - Banglar Kota
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:২০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
আপনি কি গল্প, কবিতা, ছড়া, উপন্যাস লেখেন? কিন্তু প্রকাশের কোন মাধ্যম পাচ্ছেন না? কিছু সহজ শর্ত সাপেক্ষে সাগরিকা প্রকাশনী প্রকাশ করবে আপনার স্বপ্নের গ্রন্থটি। যোগাযোগঃ ০১৭৩১৫৬৪১৬৪

চুয়াডাঙ্গার হরিশপুরে ৭ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার ধর্ষক মুনতাজ গ্রেফতার।দৈনিক বাংলার কথা।

Reporter Name
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৩৭ বার পড়া হয়েছে

 

ইসরাফিল হোসেন (নীরব)
চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধিঃ

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের হরিশপুর গ্রামে ৭ বছরের শিশু কন্যা ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত ধর্ষক
মুনতাজ (৫০) কে আটক করেছে দর্শনা থানা পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শেখ মাহবুব রহমান (ওসি তদন্ত)। ২৮ অক্টোবর রোজ বুধবার বিকাল ৬টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযুক্ত মুনতাজ হরিশপুর গ্রামের মৃত খোদাই মন্ডল অরফে দুলালের ছেলে।
এ বিষয়ে ২৮ অক্টোবর রোজ বুধবার ধর্ষিতার” মা “মোছাঃ আসমা খাতুন বাদী হয়ে ধর্ষক মুনতাজ আলীর বিরুদ্ধে দর্শনা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে ধর্ষিতার মা মোছাঃ আসমা খাতুন সাংবাদিকদের বলেন গত ৮ বছর আগে পারিবারিক ভাবে আমাদের বিয়ে হয় এবং আমার দাম্পত্য জীবনে দুই সন্তানের জননী, আমার স্বামী ঢাকায় চাকরি করতো।
এ সময় আমার স্বামী বাড়িতে না থাকায় প্রায়ই আমার শ্বশুর আমাকে কু-প্রস্তাব দিতেন এবং অস্বাভাবিক আচরণ করতেন। বিষয়টি আমার শাশুড়ি ও স্বামী কে জানালে আমার শাশুড়ি বিষয় টিকে ধামাচাপা দিত বলেন এবং সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে বলে আশ্বাস দেন।

বিষয়টি পুনরাবৃত্তি ঘটলে আমি আমার স্বামী কে নিয়ে উজলপুর বাবার বাড়িতে চলে যায়। আমার স্বামী প্রায়ই আমার মেয়েকে নিয়ে হরিমপুরে বেড়াতে যায় এবং মাঝে মধ্যে থাকে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০ অক্টোবর আমার স্বামী আমার মেয়েকে নিয়ে হরিশপুরে বেড়াতে যায় এবং মেয়েকে রেখে আসেন দাদা দাদির কাছে।২৭ অক্টোবর বাড়িতে কেউ না থাকায় এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে সকাল আনুমানিক ৬ টার দিকে ধর্ষক দাদা মুনতাজ আলী তার নাতিন ৭ বছরের শিশু কে ধর্ষণ করে।

ঐদিন আমার স্বামী মেয়েকে নিয়ে চলে আসেন এবং বাসায় এসে মেয়ে আমাকে ধর্ষণের বিষয়ে সব খুলে বলে আমি তো শুনে হতবাক হয়ে গেছিলাম। বিষয়টি জানাজানি হলে প্রতিবেশিরা ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করার জন্য পরামর্শ দেন।

এ বিষয়ে দর্শনা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করা হলে ২৪ ঘন্টার ভিতরে ধর্ষক কে আটক করে পুলিশ। ধর্ষক মুনতাজের আগামিকাল ডাক্তারি পরিক্ষা হবে বলে জানিয়েছে দর্শনা থানা পুলিশ

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সাগরিকা প্রকাশনী | সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব