1. admin@banglarkota.com : admin :
  2. jakariaborkoth@gmail.com : মোঃ তারেক হোসেন জাকারিয়া বরকত : মোঃ তারেক হোসেন জাকারিয়া বরকত
  3. adnanfahim069@gmail.com : মোঃ আবরার ফাহিম : মোঃ আবরার ফাহিম
  4. ridoyahmed.news@gmail.com : মোঃ হৃদয় আহমেদ : মোঃ হৃদয় আহমেদ
  5. irsajib098@gmail.com : মোঃ সজীব হোসেন : মোঃ সজীব হোসেন
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
আপনি কি গল্প, কবিতা, ছড়া, উপন্যাস লেখেন? কিন্তু প্রকাশের কোন মাধ্যম পাচ্ছেন না? কিছু সহজ শর্ত সাপেক্ষে সাগরিকা প্রকাশনী প্রকাশ করবে আপনার স্বপ্নের গ্রন্থটি। যোগাযোগঃ ০১৭৩১৫৬৪১৬৪

মাছ চাষে সফল নওগাঁর তোফাজ্জল হোসেন।দৈনিক বাংলার কথা।

Reporter Name
  • প্রকাশিত : বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০
  • ৮৩ বার পড়া হয়েছে

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ মোঃ রাজিব হোসেন
*অনলাইন ডেক্স*

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় শংকরপুর গ্রামে মাছ চাষ করে অভাবনীয় সাফল্য লাভ করেছেন তোফাজ্জল হোসেন। মাছ চাষ করে জিরো থেকে হিরো হয়ে যান তিনি। সংসারে এসেছে সচ্ছলতা, হয়েছে বাড়ি, সন্তানদের লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষের মতো মানুষ করে তোলার তার লালিত স্বপ্ন এখন বাস্তবায়নের পথে।

নিজের কোনো জমিজমা ছিলো না তোফাজ্জল হোসেনের। আগে অন্যের জমিতে শ্যালো মেশিন দিয়ে পানি সরবরাহ করে যে আয় করতেন তা দিয়েই কোনো রকমে সংসার চালিয়ে নিতে হতো। এরই এক পর্যায়ে এখন থেকে প্রায় ১২ বছর আগে মৎস্য বিভাগের পরামর্শ নিয়ে একটি পানা এবং জঙ্গলে ভর্তি পুকুর পরীক্ষা করে সেখানে মাছ চাষ শুরু করেন।

প্রথমে তিনি ডিম থেকে পোনা উৎপাদন করে বিক্রি করতেন। পরে পোনা ছেড়ে বড় করে বাজারজাত করতে শুরু করেন। তোফাজ্জল হোসেন অত্যন্ত কৌশলী এবং পরিশ্রমী হওয়ার ফলে তাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক সাফল্য এসেছে।

এখন তিনি ৭৫ বিঘা জলা-বিশিষ্ট প্রায় ২৫টি পুকুরে মাছ চাষ করছেন। রুই, কাতলা, মৃগেল, পাঙাশ, শিং, মাগুর প্রভৃতি মাছ চাষ করছেন। তিনি সব খরচ বাদ দিয়ে প্রতি মাসে নিট আয় করেন দুই থেকে তিন লাখ টাকা। নিজে জমি কিনে পুকুর কেটেছেন, ধামইরহাট উপজেলা সদরে চারতলা একটি বাড়িও বানিয়েছেন। তিনি এখন আর্থিকভাবে সচ্ছল। তোফাজ্জল হোসেনের মাছ চাষের সফলতার গল্প এখন এলাকার মানুষের মুখে মুখে। এলাকার অনেকেই তাকে অনুসরণ করে এবং তার কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে শুরু করেছেন মৎস্য চাষ।

তোফাজ্জল হোসেনের মৎস্য খামারে ৮ থেকে ১০ জন মজুর নিয়মিত কাজ করে তাদের সংসারের সচ্ছলতা এনেছেন। মূলত এ শ্রমিকরাই মৎস্য বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী কখন মাছের খাবার দিতে হবে, কীভাবে পরিচর্যা করতে হবে সেগুলো সঠিকভাবে তদারকি করে থাকেন।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফিরোজ আহম্মেদ বলেছেন সফল মৎস্যচাষি তোফাজ্জল হোসেন তার মাছ চাষের ক্ষেত্রে নিয়মিত পরামর্শ ও সহযোগিতা গ্রহণ করেছেন মৎস্য বিভাগের নিকট থেকে। তার এ অভাবনীয় সাফল্য মৎস্য বিভাগের জানা আছে। আর তাই মৎস্য বিভাগ জাতীয় পুরস্কার মনোনয়নের জন্য তোফাজ্জল হোসেনের নাম সুপারিশ করে সরকারের সংশ্লিষ্ট উচ্চপর্যায়ে প্রেরণ করেছে।

তোফাজ্জল হোসেনের মতো অনেকেই উদ্বৃত্ত মাছ উৎপাদনের জেলা নওগাঁ জেলাকে রূপালী সম্পদে স্বনির্ভর করে তুলছেন পাশাপাশি এ জেলার উৎপাদিত মাছ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে ঢাকা, রাজশাহী, বগুড়া, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা হয়ে থাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সাগরিকা প্রকাশনী | সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব